Designed by shamsuddin noman

Skip to Content

কুমিল্লায় জেএসসি পরীক্ষার পাশের হার ৯৩.৭৫

কুমিল্লায় জেএসসি পরীক্ষার পাশের হার ৯৩.৭৫

Closed

noakhali pic 1-30-12-2014
কুমিল্লা সংবাদদাতা : কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার পাশের হার ৯৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২ লাখ ৯ হাজার ৪শ ৪৬ জন। এর মধ্যে ১লাখ ১৮ হাজার ৫শ ৩২ জন ছাত্রী এবং ৯০ হাজার ৯শ ১৪ জন ছাত্র। মোট পাশের হার ৯৩.৭৫ ছাত্র পাশের হার ৯৪.৭৫ এবং ছাত্রী পাশের হার ৯৩ ভাগ। পাশ হওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১৭ হাজার ২শ ৬৪ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।
বোর্ডের আওতার ৬টি জেলা কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালীর এক হাজার ৮শ’৪৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শতভাগ পাশ করেছে ৫শ ২৭টি প্রতিষ্ঠান। শতভাগ শূন্য পাশের কোনো প্রতিষ্ঠান নেই। এ বছর পাসের হার ও জিপিএ-৫ বেড়েছে। পাসের হারে ছেলেরা ও জিপিএ-৫-এ মেয়েরা এগিয়ে। একই সঙ্গে বেড়েছে শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা। পাসের হার শূন্যে থাকা কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নেই। এবার বোর্ডে প্রথম হয়েছে কুমিল্লা জিলা স্কুল।
কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কায়সার আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০১৪ সালে এই বোর্ডে এবছর পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল ২ লাখ ২৩ হাজার ৩শ ৯৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ছিল ৯৫ হাজার ৯৪৮ জন, ছাত্রী ছিল ১ লাখ ২৭ হাজার ৪শ ৫০ জন। এর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছে ২ লাখ ৯ হাজার ৪৪৬ জন। পাসের হার ৯৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। ছেলেদের পাসের হার ৯৪ দশমিক ৭৫, মেয়েদের পাসের হার ৯৩। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৭ হাজার ২৬৪ জন। এর মধ্যে ছেলে ৭ হাজার ১১০ জন, মেয়ে ১০ হাজার ১৫৪ জন। এবার বোর্ডের অধিভুক্ত ৬টি জেলার ১ হাজার ৭৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫২৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব পরীক্ষার্থী কৃতকার্য হয়েছে।
বোর্ড সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বছর পাসের হার ছিল ৯০ দশমিক ৪৫, জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৬ হাজার ৯৫ জন। শতভাগ পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৩১৪টি। বোর্ডের সেরা ২০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে প্রথম কুমিল্লা জিলা স্কুল, দ্বিতীয় কুমিল্লা শহরের নবাব ফয়জুন্নেসা সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, তৃতীয় যৌথভাবে ফেনী গালর্স ক্যাডেট কলেজ ও কুমিল্লা ক্যাডেট কলেজ। সেরা ২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কুমিল্লা জেলার ১০টি, ফেনির চারটি, চাঁদপুরের তিনটি, নোয়াখালীর দুটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি। তবে লক্ষ্মীপুর জেলার কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সেরা প্রতিষ্ঠানের তালিকায় নেই। নামকরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বরাবরের মতো এবারও সেরা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে।
কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা বেগম বলেন, পর পর দু’বছর কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে প্রথম অবস্থানে রয়েছে কুমিল্লা জিলা স্কুল। ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও অধ্যবসায়ের কারণে এই ফলাফল অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। কুমিল্লা নবাব ফয়জুন্নেসা সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকসানা ফেরদৌস বলেন, ‘অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর সমন্বিত প্রচেষ্টায় এ ফল হয়েছে। বিদ্যালয়ের এমন তাক লাগানো সাফল্যে আমরা আনন্দিত।’ কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ইন্দুভূষণ ভৌমিক বলেন-প্রকাশিত ফলে আমি খুশি। পরীক্ষার্থী অনুপাতে জিপিএ-৫ আরও পেলে ভালো হতো।’

Previous
Next