Designed by shamsuddin noman

Skip to Content

কোহলিদের বিপক্ষে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে নামছে টাইগাররা

কোহলিদের বিপক্ষে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে নামছে টাইগাররা

Closed

প্রতিবেদক

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির মূল লড়াই শুরু হওয়ার আগে নিজেদের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে শেষবারের মতো ঝালিয়ে নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে মাশরাফিরা। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির জন্য সাসেক্সে দশদিনের ক্যাম্প, এরপর আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিয়েছিল বাংলাদেশ। সবমিলিয়ে প্রস্তুতিটা ভালোই হয়েছিল লাল-সবুজদের।

কিন্ত শনিবার প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে অকল্পনীয়ভাবে হেরেছে মাশরাফিরা। ৩৪১ রানের পাহাড় গড়েও স্বস্তি মেলেনি। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার কারণে নয়; বরং বোলার ও ফিল্ডারদের কারণেই হারতে হয়েছে টাইগারদের।

আর তাইতো আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে মঙ্গলবার ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায়। তাই মূল লড়াইয়ের আগে শেষ প্রস্ততি ম্যাচে জয় পেতে চায় মাশরাফি বাহিনী। অন্যদিকে, টপ ফেভারিট ভারতও জয় ছাড়া ভিন্ন কিছু ভাবছে না।

ডাবলিনে ত্রিদেশীয় সিরিজে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ উইকেটে দারুণ জয়ের পর আত্মবিশ্বাসের রসদ খুঁজে পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্ততি ম্যাচে লড়াকু ব্যাটিংয়ের পর জয়ের কাছে গিয়েও শেষ মুহূর্তে হার মানতে হয়েছে। এই মুহূর্তে তাই মূল পর্বের আগে আত্মবিশ্বাসটা ফিরিয়ে আনতে মাশরাফিদের জয় ভিন্ন বিকল্প কিছু নেই। সেই লক্ষ্য নিয়েই বাংলাদেশ বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে মাঠে নামবে।

এমনিতেই বেশ কিছুদিন ধরে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই দাঁড়িয়েছে বাড়তি উত্তেজনা, ভিন্নরকম রোমাঞ্চ এবং রুদ্ধশ্বাস লড়াই। এমন দর্শক চাহিদার কথা মাথায় রেখে ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস।

ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষাতেই নামতে হবে লাল-সবুজদের। মূল পর্ব শুরু হওয়ার আগে মাশরাফিরা চাইবেন নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে। আগের ম্যাচে দলের গুরুত্বপূর্ণ দুই পেসার রুবেল ও মোস্তাফিজকে না খেলালে এই ম্যাচে তাদের মাঠে নামানোর জোর সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া তিন নম্বরে দেখা যেতে পারে সাব্বির রহমান রুম্মনকে। প্রস্তুতি ম্যাচ বলে একাধিক খেলোয়াড়কেও মাঠে নামানো হতে পারে।

এমনিতেই পাকিস্তানের চাইতে ভারতের ব্যাটিং লাইন-আপ অনেক ভালো। সম্প্রতি বোলিং লাইনআপও আগের চেয়ে শক্তিশালী হয়েছে! এমন দলের বিপক্ষে বাংলাদেশের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ববান ইনিংস খেলতে হবে। নয়তো শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে জয় টাইগারদের জন্য বড্ড কঠিন হয়ে ধরা দেবে।

গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ভারত এবারও শিরোপা জয়ের মিশন নিয়ে ইংল্যান্ডে পা রেখেছে। প্রস্ততি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে জয় পায় তারা। সেই জয়ের ধারা নিশ্চিত ভাবেই অব্যাহত রাখতে চাইবে বাংলাদেশের বিপক্ষে। শক্তি আর পরিসংখ্যানে বাংলাদেশের তুলনায় বেশ এগিয়ে থাকলেও বর্তমান বাংলাদেশের কাছে পরিসংখ্যানতো কেবলই সংখ্যা! আর এই কারণেই কোটি বাংলাদেশি ভারতের বিপক্ষে লড়াই দেখার অপেক্ষায়।

আগের ম্যাচের ভুলগুলো শোধরাতে মঙ্গলবার ভারতের সঙ্গে নতুন কিছু পরিকল্পনা নিয়ে, বাড়তি সতর্কতার সঙ্গে মাঠে নামবে বাংলাদেশ-এমনটাই স্বাভাবিক। কেননা আসল লড়াইয়ে নামার আগে আজই বাংলাদেশ দলের সবকিছু চূড়ান্ত করতে হবে। বিশেষ করে ডেথ ওভারে দলের কৌশল কী হবে সেসব নির্ধারণ করা জরুরি।  কেননা পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ডেথ ওভারে ব্যাটিং যেমন ভালো হয়নি, তেমনি বোলিংও। ম্যাচের ভাগ্য গড়তে ডেথ ওভার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ এই জায়গাতে বেশ দুর্বল। এই বিষয়গুলোর সঙ্গে ফিল্ডিংয়ের সমস্যাটাও দূর করতে হবে মাশরাফিদেরকে। শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে এগুলো ঝালিয়ে নিতে না পারলে মূল পর্বে বাংলাদেশের জন্য জয় ছিনিয়ে আনা বেশ কঠিনই হবে।

Previous
Next