Designed by shamsuddin noman

Skip to Content

দাগনভূইয়ায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

দাগনভূইয়ায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

Closed

বিবি মরিয়ম সুমি নামে ২৬ বছর বয়সী ওই তরুণী মাতুভূঞা ইউনিয়নের আশরাফপুর গ্রামের মো. আমির হোসেনের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়নের খুশিপুর গ্রামে শ্বশুরবাড়ি থেকে সুমির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে সুমির স্বামী নূর আলমকে আটক করা হয়েছে বলে দাগনভূইয়া থানার ওসি আসলাম উদ্দিন জানান।

সুমির ছোট ভাই আলী হাসান মিলন বলেন, ২০০৩ সালে বিয়ের পর থেকেই তার বোনকে যৌতুকের জন্য ‘চাপ দিয়ে আসছিলেন’ নূর আলম। তার দাবি অনুযায়ী কয়েক দফায় ‘মোটা অংকের টাকা’ যৌতুকও দেওয়া হয়েছিল।

নূর আলম সম্প্রতি আবারও যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকলে সুমির পরিবার টাকা দিকে অপারগতা প্রকাশ করে। এতে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন ওই তরুণীর ওপর নির্যাতন শুরু করে বলে মিলনের অভিযোগ।

তিনি বলেন, “এসব বিষয় নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে স্বামীর সাথে সুমির ঝগড়া হলে তাকে পিটিয়ে আহত করে। এক পর্যায়ে সুমির মুখে বিষ ঢেলে দেওয়া হয়। এতে সুমি মারা যায়।”

দাগনভূইয়া থানার ওসি আসলাম উদ্দিন জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ওই বাড়ি থেকে সুমির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

হত্যার অভিযোগের বিষয়ে সুমির স্বামী নূর আলমের পরিবারের কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় সুমির পরিবার মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানান ওসি

Previous
Next