Designed by shamsuddin noman

Skip to Content

নদীতীর দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ কার্যক্রম চলমান থাকবে: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

Closed

নদীতীরের উচ্ছেদ কার্যক্রম চলমান থাকবে জানিয়ে পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও নির্দেশনায় বর্তমান সরকার বাংলাদেশের নদ-নদীগুলো দখলমুক্ত করতে বদ্ধপরিকর। সেলক্ষ্যে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয় ও দপ্তর সমন্বিতভাবে বুড়িগঙ্গা ও কর্ণফুলী নদীর তীরবর্তী দখলদারদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করছে।’

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন কর্তৃক আয়োজিত এক নাগরিক সমাবেশে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এসব কথা বলেন।

উপমন্ত্রী বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমরা সরেজমিনে দেশের জলাবদ্ধ ও ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন শুরু করেছি। ভাঙ্গন কবলিত এলাকাগুলো চিহ্নিত করে ভাঙ্গন প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণে আমরা কাজ করছি।’

এসময় বর্ষা মৌসুমে দেশবাসীকে জলাবদ্ধতা হতে মুক্ত করতে তার মন্ত্রণালয় নিরলস কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান উপমন্ত্রী।

নদী রক্ষায় সরকারি কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি জনগণকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালনের আহ্বান করেন।

তিনি বলেন, ‘সমাজের সচেতনরা নদী দখলদারদের স্থানীয়ভাবে প্রতিরোধ করুন ও নদী তীরের উচ্ছেদ কার্যক্রমে সরকারকে সহযোগিতা করুন।’

নদীতীর দখলমুক্তকরণ কার্যক্রমে সাংবাদিকদের ভূমিকার প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আপনাদের প্রকাশিত ও প্রচারিত সংবাদের ভিত্তিতে আমরা সহজেই এসব দখলদার ও দূষণকারীদের চিহ্নিত করতে পেরেছি এবং পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় এসব সংবাদের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিচ্ছে।’

সাংবাদিকদের এই প্রচেষ্ঠা আগামীদিনেও অব্যাহত রাখতে হবে বলে জানান তিনি।
জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন আয়োজিত এই নাগরিক সমাবেশে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার সাদাত, সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. বাচ্চু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম আন্তর্জাতিক সম্পাদক মনির মুন্সি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Previous
Next