Designed by shamsuddin noman

Skip to Content

শিগগিরই চাকসু নির্বাচন চান তথ্যমন্ত্রী

Closed

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (চাকসু) নির্বাচন শিগগিরই অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষক লাউঞ্জের পাশে অনুষ্ঠিত রসায়ন বিভাগের সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবে তিনি এ আশা ব্যক্ত করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি ডাকসুর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতির কথা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বীকারও করেছে। এ নিয়ে তদন্তও হচ্ছে। তবে নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে সহসভাপতি (ভিপি) পদে জয়লাভ সম্ভব হতো না।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ভালো নির্বাচন হয়েছে বিধায় নির্বাচন বর্জনকারীরাও জয়লাভ করেছেন। এ ছাড়া নেতৃত্ব বিকাশের জন্য ছাত্র সংসদের বিকল্প নেই। তাই আশা করব বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সহসায় চাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে।

রসায়ন বিভাগের সভাপতি মনির উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন উপাচার্য ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন সহ-উপাচার্য শিরীণ আখতার, সাবেক মুখ্য সচিব মো. আবদুল করিম ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন মোহাম্মদ সফিউল আলম।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আশির দশকের শেষ দিকেও মালয়েশিয়া থেকে ছাত্ররা এ দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে পড়তে আসতেন। এখন উল্টোটা ঘটছে। এ দেশ থেকেই ওখানে পড়তে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

সাবেক মুখ্য সচিব মো. আবদুল করিম বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, দারিদ্র্য বিমোচন, নারীশিক্ষাসহ আরও বেশ কয়েকটি সূচকে বাংলাদেশ সফলতা লাভ করেছে। এ সফলতাকে ধরে রাখলে ২০২১ সালের মধ্যে এ দেশ মধ্যম আয় ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হবে।

দুই দিনব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের প্রথম দিনে উদ্বোধকের বক্তব্যে উপাচার্য ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, রসায়ন বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থীরা দেশ–বিদেশের বড় বড় প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন। তাঁদের মেধা ও প্রজ্ঞা দিয়ে দেশকে সমৃদ্ধ করছেন। পাশাপাশি এ বিভাগের শিক্ষকেরা যোগ্য মানবসম্পদ উৎপাদনে কাজ করে চলেছেন। এটি সবার জন্যই অত্যন্ত গৌরবের।

রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক জয়নুল আবেদীন সিদ্দিকী ও এস এম আবে কাউছারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক শাহানারা বেগম। এ ছাড়া উৎসবে ওই বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Previous
Next