জাতীয়

দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে প্রধানমন্ত্রীর পাশে দেশবাসী থাকবে : ভাষা সৈনিক রেজাউল করিম

ঢাকা ব্যুরো : স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর সরকারই প্রথম মদ, জুয়া ও রমনা রেসকোর্স ময়দান বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ঘোড় দৌড় প্রতিযোগিতা বন্ধ করেছিলেন বলে মন্তব্য করে ভাষা সৈনিক মো. রেজাউল করিম বলেন, সুতরাং বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বর্তমানে তা বন্ধ করতে সফল হবেন বলে দেশবাসী বিশ্বাস করে।
তিনি বলেন, চলমান দুর্নীতি বিরোধী অভিযান সফল হবে এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে সফল হবেন। সুতরাং প্রধানমন্ত্রীকে জাতির স্বার্থে-রাষ্ট্রের স্বার্থে এই সকল কিছুর বিরুদ্ধে তার লড়াই অব্যাহত রাখবে বলে বিশ্বাস করি। প্রধানমন্ত্রীর এই লড়াইয়ে দেশ-জাতি-জনগণ সকল সময়ই তার পাশে থাকবে।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম মিলনায়তনে তৃনমূল জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (তৃনমূল এনডিএম)’র দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে “সমৃদ্ধির বাংলাদেশ এবং একজন শেখ হাসিনা” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনের পথ ধরে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে জন্ম নেওয়া শোষণমুক্ত সমঅধিকার ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হওয়ার বদলে প্রায় চার যুগ ধরে তার বিপরীত ধারায় দেশ পরিচালিত হয়েছে। জনগণের স্বপ্নভঙ্গ ও হতাশার সুযোগ নিয়ে দেশে দুর্নীতি আর লুন্ঠনের রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ক্ষমতার সমীকরণ মেলানোর প্রয়োজনে শাসকদলগুলো দুর্নীতি আর লুটেরা শক্তির মদদ পেতে পরস্পরের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে। দেশ আজ এই মহাবিপদের সম্মুখীন। দেশকে এই মহাবিপদ থেকে রক্ষা করতে শেখ হাসিনার মত নেতৃত্বকেই দায়িত্ব নিতে হবে এবং সফল হতে হবে।
তিনি আরো বলেন, বর্তমানে দুর্নীতি অপ্রতিরোধ্যভাবে শুরু হয়েছে। যা আমাদের রাষ্ট্রকে মারাত্মক হুমকির মুখে ফেলেছে। সুতরাং প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্র ও জনগণের স্বার্থে তার লড়াই অব্যাহত রাখবে বলে বিশ্বাস করি। প্রধানমন্ত্রীর এই লড়াইয়ে দেশ-জাতি-জনগণ সকল সময়ই তার পাশে থাকবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া দুর্নীতি বিরোধী অভিযানকে ইতিবাচক ও সময়োপযোগী চিন্তার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, দেশের উন্নয়ন ও বিনিয়োগে সবচেয়ে বড় বাঁধা বহুমাত্রিক দুর্নীতি। স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে হলে দুর্নীতির মূলোচ্ছেদ অপরিহার্য। তিনি বলেন, দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে আটক রাজনৈতিক অঙ্গনের বিশেষ কয়েকজনেদুধুর্নীতি উন্মোচন হওয়ায় আর্থিক হরিলুটের ভয়াবহ চিত্র ফুটে উঠেছে। তাই রাজনৈতিদুধুর্বৃত্তায়ন বন্ধ করা গেলে আমলাতান্ত্রিক দুর্নীতির পথ রুদ্ধ হবে এবং সাধারণ মানুষের কাঙ্খিত একটি সূখী সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়ে উঠবে।
তৃনমূল এনডিএম চেয়ারম্যান খোকন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, ভারতীয় জনতা পার্টি মজদুর ট্রেড ইউনিয়ন-পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ সম্পাদক শ্রী সাধন তালুকদার, বাংলাদেশ এডিটরস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল আনোয়ার, আওয়ামী লীগের দপ্তর উপ কমিটির সহ-সম্পাদক ইস্কান্দার মির্জা শামীম, কলকাতার সাপ্তাহিক মুক্তিযোদ্ধার সম্পাদক গৌতম ঘোষ। উদ্বোধন করেন ড. ওয়াজেদ মিয়া কল্যাণ পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মাকসুদুর রহমান মাসুদ, বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট সিনিয়র সহ-সভাপতি ডা. এস কে রায়, বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী ফোরাম সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. রাজ্জাকুল হায়দার, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. নুরুল ইসলাম চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শহিদ উল্লাহ, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এমএস চৌধুরী শুভ প্রমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close