নোয়াখালী

বেগমগঞ্জের অগ্নিকান্ডে সব হারানোর শোকে দোকান কর্মচারীর মৃত্যু

প্রতিবেদক ;

: বৃহত্তর নোয়াখালীর প্রধান বাণিজ্যিক শহর বেগমগঞ্জের চৌমুহনী স্টেশন রোডে শুক্রবার সকালে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে সব হারানোর শোকে আবদুল বাতেন(৫০) নামের এক দোকান কর্মচারী স্টোক করে মৃত্যু বরন করেন। নিহত বাতেনের বাড়ি কুমিল্লার বিপুলাশহর এলাকায়। তিনি স্টেশন রোড এলাকার মেলা ক্রোকারীজ নামক দোকানের কর্মচারী।
মেলা ক্রোকারীজের মালিক ছুট্টু মিয়া জানান, আগুন লাগার পর বাতেনসহ আমরা সবাই দোকানের মালামাল সরাতে ব্যাস্ত হয়ে পড়ি। এ সময় বাতেনকে খুবই মর্মাহত দেখা যায়। এক পর্যায়ে বাতেন হঠাৎ জ্ঞান হারিয়ে পড়ে যান। আমরা তাকে দ্রুত স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। অতিরিক্ত চিন্তায় স্টোক করে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারনা করছে ডাক্তাররা।
বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) ফিরোজ হোসাইন মোল্লা জানান, অগ্নিকান্ডের সময় বাতেন অজ্ঞান হয়ে পড়ে মারা গেছে বলে আমরা শুনেছি। তার গ্রামের বাড়িতে খবর দেওয়া হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা আসলে তাদের সাথে আলোচনা করে পরবর্তি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার চৌমুহনীর স্টেশন রোড এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মেলা ক্রোকারীজসহ অন্তত ৫৮টি দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে যায়। এতে প্রায় শত কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীলা। এদিকে ঘটনার পর অগ্নিকান্ডের স্থলে ছুটে আসেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক(ডিসি) তন্ময় দাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আবু ইউছুফ, বেগমগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ওমর ফারুক বাদশা, চৌমুহনী পৌর মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সল, ভারপ্রাপ্ত বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তফা জাবেদ কায়সারসহ প্রশাসনের বিভিন্নস্থরের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা। এ সময় জেলা প্রশাসকসহ সবাই অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের সব রকম সহযোগীতার আশ^াস দেন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close