নোয়াখালীনোয়াখালীর খবর

যুবলীগ নেতাকে কোপানোর জেরে সোনাইমুড়ীতে দু’গ্রামের সংঘর্ষ, পুলিশের গুলি, আটক-৩

 

প্রতিবেদক ;

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর নদনা ইউনিয়নে মো. ইউছুফ আলী (৪০) নামের এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করেছে একদল মুখোশধারী। এ ঘটনার জের ধরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১১জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে ও ঘটনাস্থল থেকে তিন জনকে আটক করে।

রবিবার রাত ৯টার দিকে নদনা বাজারে ইউছুফ আলীর ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতর ইউছুফ আলী দক্ষিণ শাকতলা গ্রামের মোজাফর আলী জমাদার বাড়ীর ছায়েদ আলীর ছেলে। তিনি নদনা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন। আটককৃতরা হচ্ছেন, উত্তর শাকতলা গ্রামের সায়দুল হকের ছেলে ইয়াছিন ফারুক বাবু (২২), একই এলাকার মহিন উদ্দিনের ছেলে নাছির উদ্দিন নিরব (২০) ও রশিদ আলমের ছেলে আবুল বাশার সেজাদ (২১)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোবাইলে রিচার্জ করার জন্য ইউছুফ নদনা বাজারের অগ্রনী ব্যাংক এলাকার শান্ত সবুজ এন্ড ভ্যারাইটিজ স্টোরে আসেন। এসময় একদল মুখোশধারী ইউছুফের ওপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। পরে হামলার খবর দক্ষিণ শাকতলা গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে উভয় গ্রামের লোকজন নদনা বাজারে এসে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষকারীরা পাল্টাপাল্টি বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে পুলিশের গাড়ীকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

নদনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উত্তর ও দক্ষিণ শাকতলা গ্রামের কিছু বখাটে যুবক প্রায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এসব ঘটনার জের ধরে কয়েকজন মুখোশধারী যুবক নদনা বাজারে এসে ইউছুফকে কুপিয়ে জখম করে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল ও অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুস সামাদ বলেন, যুবলীগ নেতা ইউছুফের ওপর হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সংঘর্ষকারীরা পুলিশের গাড়ীকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে পুলিশের দু’টি ভ্যানের ক্ষতি হয় ও তছলিম নামের এক কনেস্টবল আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৮রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি নিক্ষেপ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তিনজনকে আটক করা হয়েছে। হামলাকারীদের আটকের জন্য অভিযান অব্যহত রয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close