রাজনীতি

খালেদার চিকিৎসার ক্ষেত্রে বিধি-নিষেধ প্রত্যাহারের দাবি নজরুলের

প্রতিবেদক; দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার ক্ষেত্রে সরকারি যে বিধি-নিষেধ রয়েছে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর ) জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন ও বিশেষ মোনাজাত শেষে তিনি এ দাবি জানান।নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকারি আদেশে চিকিৎসার জন্য দলের চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বাইরে যাওয়া নিষেধ করাটা অমানবিক বলে আমরা মনে করি। সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনে তিনি যাতে বিদেশে যেতে পারেন সে ব্যাপারে যে বিধি নিষেধ সেটা প্রত্যাহার করা মানবিক একটা কর্ম। এটা আমাদের দাবি।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা তুলে ধরে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, তিনি এখন ঘরে থাকতে পারছেন, যদিও নানা বিধি নিষেধের মধ্যে। একজন মানুষ তার বয়স প্রায় ৭৬ বছর। তিনি অসুস্থ আমরা সবাই জানি। তাকে বিদেশে চিকিৎসা নিতে হয়েছে এবং তার উন্নত চিকিৎসা নেয়া দরকার। দীর্ঘদিন তিনি হাসপাতালে ছিলেন কিন্তু সুস্থ হতে পারেননি।’

তিনি বলেন, আমরা মানবিক বাংলাদেশ চাই। তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনে তাকে বাইরে নিতে হবে। তিনি যাবেন কি যাবেন না, যাওয়ার প্রয়োজন হবে কি হবে না সেটা ভিন্ন কথা। কিন্তু সরকারি আদেশে তার বাইরে যাওয়া নিষেধ করাটা অমানবিক বলে আমরা মনে করি।

নজরুল আরও বলেন, একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধে আমাদের স্বপ্ন ছিল- একটা স্বাধীন শুধু নয়, একটা গণতান্ত্রিক, মানবিক, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার। কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের স্বাধীনতার এতো বছর পরে আমরা এদেশে একদলীয় শাসন দেখেছি, সামরিক স্বৈরশাসন দেখেছি, বেসামরিক স্বৈরাশাসনও দেখছি। ফলে গণতন্ত্র বলতে যা বোঝায় যথাযথভাবে তার বাস্তবায়ন এখনও হয়নি।তিনি বলেন, বার বার গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে, আহত করা হয়েছে। সেই বহুদলীয় গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান আর সংসদীয় গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সরকার। আজ সেই গণতন্ত্র সংকটের মুখে।

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে মহিলা দলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, কেন্দ্রীয় নেত্রী নিলোফার চৌধুরী মনি, শাম্মী আখতার, ইয়াসমীন আরা হক, পিয়ারা মুস্তফা, শামসুন্নাহার ভূঁইয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close