নোয়াখালীর খবরফেনী

গ্যাস লাইন লিকেজ ফেনীর মহাসড়কে , ভয়াবহ দুর্ঘটনার আশঙ্কা

প্রতিবেদকঃ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল জিরো পয়েন্ট এলাকায় বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির লাইন লিকেজ হয়ে প্রায় এক বছর ধরে অনবরত গ্যাস নির্গত হচ্ছে। দিয়াশলাই বা সিগারেটের আগুনের স্পর্শ পেলে দাউদাউ করে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ছে সড়কে। এর ওপর দিয়েই যাতায়াত করছে যানবাহন। যে কোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন চালক ও স্থানীয়রা। কর্তৃপক্ষ বলছে, এক সপ্তাহের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে। 

পানি পেলে বুদবুদ করে আর দিয়াশলাই কিংবা সিগারেটের আগুনের সংস্পর্শে এলেই জ্বলে উঠছে আগুন। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল জিরো পয়েন্ট এলাকায় বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির লাইন লিকেজ হয়ে এমন ঘটনা ঘটছে প্রায় এক বছর ধরে। ঝুঁকি নিয়ে চালকরা এর ওপর দিয়েই গাড়ি চালাচ্ছেন। আবার অনেক সময় দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠানামা করছে। এতে করে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক মাস ধরে এভাবে গ্যাস নির্গত হচ্ছে। বাখরাবাদ গ্যাস কোম্পানিকে জানালো হলে, তারা বালু ছিটিয়ে দিয়ে চলে যায়। এ অবস্থায় সবার মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।তারা বলেন, ‘আমরা অবশ্যই দ্রুত এর সমাধান চাই। কারণ, যে কোন সময় ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

সমস্যা সমাধানে গত জুলাই মাসে ফেনীর সড়ক ও জনপথ বিভাগকে লিখিতভাবে সড়ক কাটার অনুমতি চাওয়া হয়েছে বলে জানান ফেনীর বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্টিবিউশন কোম্পানির ব্যবস্থাপক মো. সাহাব উদ্দিন।তিনি জানান, জাতীয় মহসড়কে কাজ করতে গেলে সড়ক বিভাগের অনুমতি লাগবে। তাদের অনুমতি ছাড়া সেখানে গ্যাস কোম্পানি কাজ করতে পারে না। পারমিশন পেলেই তারা রাস্তা কেটে পাইপ বের করে ফেলবেন বলেও জানান তিনি।

ফেনীর সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান উদ্দিন আহমেদ জানান, যান চলাচল স্বাভাবিক রেখে কীভাবে মেরামত করা যায় সেটা দেখা হচ্ছে।

ব্যস্ততম এই সড়কটির গ্যাসলাইন দ্রুত সংস্কার করা না হলে নারায়ণগঞ্জের মত বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা করছে চালক ও স্থানীয়রা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close