খেলাধুলা

পুরো ম্যাচে ১২ হলুদ কার্ড ও ৫ লাল কার্ডের মধ্যে দুই হলুদ ও এক লাল কার্ড খেলেন নেইমার-

প্রতিবেদকঃ নতুন মৌসুমে প্রথমবার মাঠে নামাটা মোটেও সুখকর হয়নি ফ্রেঞ্চ ক্লাব ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার জুনিয়রের। মার্শেইর বিপক্ষে শুধু হারই নয়, ঘটেছে আরও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। ম্যাচের শেষদিকে মারামারি ও তর্কে জড়িয়ে লাল কার্ড দেখেছেন দুই দলের পাঁচ খেলোয়াড়।

যেখানে রয়েছে নেইমারেরও নাম। পুরো ম্যাচে ১২ হলুদ কার্ড ও ৫ লাল কার্ডের মধ্যে দুই হলুদ ও এক লাল কার্ড গেছে নেইমারের নামের পাশে। কিন্তু দ্বিতীয় হলুদ তথা লাল কার্ডের পেছনে তার দায় ছিল সামান্যই। কেননা প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার আলভারো গঞ্জালেজের বর্ণবাদী গালির প্রতিবাদ করেছিলেন তিনি।ম্যাচের অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে তর্কে জড়িয়ে পড়েন দুই দলের দুই আর্জেন্টাইন খেলোয়াড় লেওনার্দো পারেদেস ও দারিও বেনদেত্তোর ফাউলের ঘটনাকে বড় করেন জর্ডান অ্যামেভি-ল্যাভিন কুরযায়ারা। ফলে চারজনকেই দেখানো হয় লাল কার্ড।

তখন আলভারো গঞ্জালেজ অভিযোগ করেন, তার মাথায় মেরেছেন নেইমার। এ অভিযোগের ভিত্তিতে নেয়া হয় ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সহায়তা এবং পঞ্চম খেলোয়াড় হিসেবে নেইমারকে দেখানো হয় লাল কার্ড। কিন্তু নেইমার কেনো সেই খেলোয়াড়ের মাথায় মেরেছেন, সেটি খুঁটিয়ে দেখেননি রেফারি।

ম্যাচ শেষে এটি নিজেই পরিষ্কার করেছেন নেইমার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে রাগে ফুটতে নেইমার জানিয়েছেন, গঞ্জালেজের মাথায় থাপ্পড় না দিয়ে বরং মুখে ঘুষি মারা উচিৎ ছিল। কেননা মার্শেইর এ ডিফেন্ডার তাকে অকথ্য ভাষায় বর্ণবাদী গালি দিয়েছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close