আন্তর্জাতিকখেলাধুলা

আগের দিন ধারাভাষ্য দিলেন আইপিএলে, পরের দিনই না ফেরার দেশে

প্রতিবেদকঃ অকল্পনীয়! আইপিএলে গতকালও (বুধবার) কলকাতা নাইট রাইডার্স আর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ম্যাচে ধারাভাষ্য দিচ্ছিলেন তিনি। কে জানতো, পরের দিনই এমন দুঃসংবাদ আসবে!

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৫৯ বছর বয়সেই পরপারে পারি জমিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার এবং জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ডিন জোন্স। আজ (বৃহস্পতিবার) ভারতের মুম্বাইয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি।

চলতি আইপিএলে স্টার স্পোর্টস কমেন্ট্রি প্যানেলের হয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন ডিন জোন্স। মুম্বাইয়ের একটি সেভেন স্টার হোটেলে জৈব সুরক্ষিত বলয়ে ছিলেন সাবেক এই অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার।

তার সঙ্গে স্টার স্পোর্টসে ধারাভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক গতিতারকা ব্রেট লি এবং ভারতের সাবেক ক্রিকেটার নিখিল চোপড়া। আজ সকালেও তারা তিনজন একসঙ্গে সকালের নাস্তা করেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, নাস্তার পর সকাল ১১টার দিকে হোটেলের করিডোরে দাঁড়িয়ে কয়েকজন সহকর্মীর সঙ্গে ব্যাট-বল নিয়ে মেতে উঠেছিলেন জোন্স। এ সময় হঠাৎ বুকে ব্যথা উঠলে মেঝেতে পড়ে যান তিনি। তড়িঘড়ি করে হাসপাতালে নেয়া হলেও বাঁচানো যায়নি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, সেখানে নেয়ার আগেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক এই ক্রিকেটার।

স্টার স্পোর্টস এক বিবৃতিতে বলেছে, ‌‘অতীব দুঃখের সঙ্গে আমরা ডিন জোন্সের মৃত্যুর খবর জানাচ্ছি। তিনি আকস্মিক হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করেছেন।’

‘আমরা তার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই, এই কঠিন সময়ে তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই আমরা। প্রয়োজনীয় কার্যক্রমের ব্যাপারে আমরা অস্ট্রেলিয়ান হাই কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।’

স্বভাবতই জোন্সের এমন আকস্মিক মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না তার সহকর্মীরা। ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হর্শে ভোগলে টুইট করেছেন, ‘না, আমি বাকরুদ্ধ। সেইসঙ্গে স্মম্ভিত। মেনে নিতে পারছি না।’

ধারাভাষ্যকার হিসেবে নাম কামানোর আগে ১০ বছরের খেলোয়াড়ি জীবনটাও বেশ সমৃদ্ধ ছিল জোন্সের। ১৯৮৪ সালে অভিষেকের পর দেশের হয়ে ৫২ টেস্টে ৪৬.৫৫ গড়ে ১১ সেঞ্চুরিসহ করেন ৩ হাজার ৬৩১ রান। ওয়ানডেতে খেলেছেন ১৬৪ ম্যাচ। ৪৪.৬১ গড়ে ৭ সেঞ্চুরি ও ৪৬ হাফসেঞ্চুরিত এই ফরমেটে করেছেন ৬ হাজার ৬৮ রান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close