ওপার বাংলা

বিদ্যাসাগর মূর্তির জন্য আমি দায়ী হলে আমায় ফাঁসি দিন : রাকেশ সিং

ডেক্স রিপোর্ট ;

তাঁর বিরুদ্ধে বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার অভিযোগও উঠেছিল। ১৩ মে অমিত শাহের রোড শো’য়ে সেই হুলুস্থুলু কাণ্ডের দায় পড়েছিল বিজেপিতে যোগ দেওয়া রাকেশ সিংয়ের বিরুদ্ধে। তাঁর নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতেই প্রকাশিত একটি ভিডিও ঘিরে বিতর্কের দানা বাঁধে। পুলিশ তার বিরুদ্ধে প্রমাণ জমা দেওয়ার পর তাকে সাত দিন পুলিশের হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত। সেই মামলা এখনও চলছে। শুক্রবার আলিপুর দায়রা আদালতে এই কাণ্ড নিয়ে তিনি হাজিরা দেবেন। হাজিরা দেওয়ার আগে বিজেপি নেতা বললেন , ‘প্রমাণ করতে পারলে আমাকে ফাঁসি দেওয়া হোক’।

তিনি বৃহস্পতিবার রাত আটটা নাগাদ তার সোশ্যাল মাধ্যমে এই আবেদন জানান। তিনি লিখেছেন, “একজন সাধারণ বিজেপি কর্মী হিসাবে মাননীয় বিজেপি জাতীয় সভাপতি অমিত শাহজি’র রোড শো তে আমি উপস্থিত ছিলাম। স্বামী বিবেকানন্দ বাড়ির পাশ থেকে শুরু হওয়া ওই রোড শো’তে উপস্থিত ছিলাম। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ। এই ঘটনা আমি ঘটাইনি, এই ঘটনা নিয়ে আমার কিছু করারও নেই। পশ্চিমবঙ্গের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী এবং কলকাতা পুলিশের রাহাজানি আমাকে কোনও কারণ ছাড়াই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে দিয়েছে।” এরপরেই তিনি লিখেছেন , “যদি ১৪.০৫.২০১৯ তারিখে বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙচুর করার ঘটনায় আমার যুক্ত থাকার কোনও প্রমাণ থাকে, তবে আমায় ফাঁসির সাজা দেওয়া হোক।

সোশ্যাল মাধ্যমে রাকেশ সিং দুঃখ প্রকাশ করে লিখেছেন , “সত্যিই রাজনীতি খুব সস্তার হয়ে গিয়েছে। এই সস্তার রাজনীতিতে বাংলা ও বাঙালির রাজনীতি সবার উপরে। আমি আত্মবিশ্বাসী যে বাংলায় বাঙালিদের সম্পূর্ণ বিশ্বাস ও ভালোবাসা পাব। আমি এটাও মনে করি যে , আমি অবাঙালি হলেও এই মিথ্যাচারে এবং এই মামলায় আমি বেকসুর খালাসের রায় পাব।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close