নোয়াখালীনোয়াখালীর খবর

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল যে কোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল যে কোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে

ছাদের পলেস্তরা খসে পড়ার পর নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের কিছু রোগী সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তবুও কাটেনি আতঙ্ক। কারণ পুরো ভবনটিকে ৪ বছর আগেই পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, অস্থায়ী টিনসেড নির্মাণ করে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন থেকে সব রোগিকে সরিয়ে নেয়া হবে।
১২ জুন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিভাগের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের একটি কক্ষে ছাদের পলেস্তরা খসে পড়ে। আহত হয় ৭ শিশুসহ ১১ জন। এরপর ভবনটি ব্যবহারের অনুপযোগী ঘোষণা করে গণপূর্ত বিভাগ।
এর পর পরই বন্ধ রাখা হয় নতুন রোগী ভর্তি। সরিয়ে নেয়া হয় দুটি ওয়ার্ডের শিশু রোগীদের। তাদের ঠাঁই হয়েছে মেঝে এবং বারান্দায়। থাকতে হচ্ছে গাদাগাদি করে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, হাসপাতাল ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৬৭ সালে। ২০১৫ সালে ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে গণপূর্ত বিভাগ। তারা জানিয়েছেন, ২০০৮ সাল থেকে অন্তত ২০বার ভবনের বিভিন্ন স্থানে পলেস্তরা খসে পড়ার ঘটনা ঘটেছে।
কর্তৃপক্ষ বলছে, শিগগিরই ভবনটি থেকে সকল কার্যক্রম সরিয়ে নেয়া হবে।
নতুন ভবন নির্মাণে বরাদ্দ পাওয়ার আগ পর্যন্ত অস্থায়ী টিনশেড নির্মাণের কথা জানিয়েছে গণপূর্ত বিভাগ।
সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা একই সাথে রোগীদের নিরাপত্তায় দ্রুত কার্যকর উদ্যোগ দেখতে চায় নোয়াখালীবাসী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close